Junior Bigyani Kanya Medha Britti

জুনিয়ার বিজ্ঞানী কন্যা মেধা বৃত্তি ২০২৪ | Junior Bigyani Kanya Medha Britti 2024

Senior Bigyani Kanya Medha Britti 2024

সিনিয়র বিজ্ঞানী কন্যা মেধা বৃত্তি ২০২৪ | Senior Bigyani Kanya Medha Britti 2024 Apply

Heat Chapter Poribesh O Bigyan

অষ্টম শ্রেণীর পরিবেশ ও বিজ্ঞান অধ্যায় 1.3 তাপ | Heat Chapter Poribesh O Bigyan Class 8

Last Updated on May 7, 2024 by Science Master

অষ্টম শ্রেণীর পরিবেশ ও বিজ্ঞান অধ্যায় 1.3 তাপ (Heat Chapter Poribesh O Bigyan) থেকে সমস্ত রকম প্রশ্ম এবং তার উত্তর করে দেওয়া হল। অষ্টম শ্রেণীতে পাঠরত ছাত্র-ছাত্রীরা এই প্রশ্ম উত্তর গুলি দেখে নিতে পারো। বিভিন্ন প্রশ্মবিচিত্রা থেকে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ MCQ, VSAQ, SAQ এবং গাণিতিক প্রশ্ম-উত্তর দেওয়া আছে।

সঠিক উত্তরটি নির্বাচন করে লেখো (Heat Chapter Poribesh O Bigyan)

(১) আপেক্ষিক তাপের একক হল-

(a) ক্যালোরি /g /⁰C

(b) ক্যালোরি /g. ⁰C

(c) ক্যালোরি g. ⁰C

(d) ক্যালোরি. ⁰C/g

উত্তর:- ক্যালোরি /g. ⁰C

(২) যে পদার্থটি তাপের কুপরিবাহী সেটি হল-

(a) তামা

(b) লোহা

(c) কাঠ

(d) অ্যালুমিনিয়াম।

উত্তর:- কাঠ।

(৩) সূর্য থেকে পৃথিবীতে তাপ আসে-

(a) পরিবহন ও পরিচলন পদ্ধতিতে

(b) পরিবহন ও বিকিরণ পদ্ধতিতে

(c) পরিচলন ও বিকিরণ পদ্ধতিতে

(d) বিকিরণ পদ্ধতিতে

উত্তর:- বিকিরণ পদ্ধতিতে।

(৪) পরিবহন পদ্ধতিতে তাপ প্রবাহিত হয়-

(a) শুধুমাত্র কঠিন পদার্থের মধ্য দিয়ে

(b) শুধুমাত্র তরল পদার্থের মধ্য দিয়ে

(c) শুধুমাত্র গ্যাসীয় পদার্থের মধ্য দিয়ে

(d) তরল কঠিন ও গ্যাসীয় সব পদার্থের মধ্য দিয়ে

উত্তর:- শুধুমাত্র কঠিন পদার্থের মধ্য দিয়ে।

(৫) কোন পদার্থের আপেক্ষিক তাপ সবচেয়ে বেশি-

(a) লোহা

(b) তামা

(c) সিসা

(d) জল

উত্তর:- জল।

(৬) হিমমিশ্র হল-

(a) বরফ ও কর্পূরের মিশ্রণ

(b) বরফ ও জলের মিশ্রণ

(c) বরফ ও সোডার মিশ্রণ

(d) বরফ ও নুনের মিশ্রণ

উত্তর:- বরফ ও নুনের মিশ্রণ।

(৭) জলের বাষ্পীভবনের লীনতাপ-

(a) 80 cal/g

(b) 180 cal/g

(c) 100 cal/g

(d) 537 cal/g

উত্তর:- 537 cal/g।

(৮) বস্তুর মোট তাপ কোন বিষয়ের উপর নির্ভর করে না?

(a) বস্তুর ভর

(b) বস্তুর উপাদান

(c) বস্তুর উষ্ণতা বৃদ্ধির পরিমাণ

(d) কোনোটিই নয়

উত্তরঃ- কোনোটিই নয়।

(৯) কোনটির গলনাংক ও হিমাঙ্ক সমান হয়-

(a) চর্বির

(b) মাখনের

(c) পারদের

(d) মোমের

উত্তরঃ- মোম।

ঠিক বা ভুল নির্বাচন করো:

(১) হিরে তাপের কুপরিবাহী পদার্থ।

উত্তর:- ভুল।

(২) পরিবহন প্রক্রিয়ায় তাপ সঞ্চালনের সময় মাধ্যমের কণার স্থানচ্যুতি ঘটে না।

উত্তর:- ঠিক।

(৩) নুন মেশালে জলের স্ফুটনাঙ্ক কমে যায়।

উত্তর:- ভুল।

(৪) বায়ু চলাচল করলে বাষ্পায়নের হার কমে যায়।

উত্তর:- ভুল।

(৫) চাপ বাড়ালে জলের স্ফুটনাঙ্ক বেড়ে যায়।

উত্তর:- ঠিক।

(৬)

শূন্যস্থান পূরণ করো: (Heat Chapter Poribesh O Bigyan)

(১) সূর্য থেকে ______ পদ্ধতিতে তাপ পৃথিবীতে এসে পৌঁছায়।

উত্তর:- বিকিরণ।

(২) বরফ গলনের লীনতাপ ______ ক্যালরি/ গ্রাম।

উত্তর:- 80 ক্যালরি/ গ্রাম।

(৩) আপেক্ষিক তাপের CGS একক______।

উত্তর:- ক্যালোরি / গ্রাম / oC

(৪) ______পদ্ধতিতে তাপের প্রবাহে মাধ্যমের প্রয়োজন হয় না।

উত্তর:- বিকিরণ।

আরও দেখুনঃ অষ্টম শ্রেণীর পরিবেশ বিজ্ঞান- জীবদেহের গঠন | Class 8 Poribesh o Bigyan Chapter 6

Heat Chapter Poribesh O Bigyan একটি বাক্যে উত্তর দাও:

(১) একটি অধাতব পদার্থের উদাহরণ দাও যা তাপের সুপরিবাহী।

উত্তর:- গ্রাফাইট।

(২) বিকিরণ প্রক্রিয়ায় তাপক্ষয় আটকাতে থার্মোফ্লাক্সের কাচের দেয়ালে কিসের প্রলেপ লাগানো হয়?

আরও দেখুন:  অষ্টম শ্রেণীর পরিবেশ বিজ্ঞানঃ পদার্থের গঠন প্রশ্ম উত্তর | Poribesh o Bigyan Class 8 Chapter 2.2

উত্তর:- রুপোর প্রলেপ।

(৩) ক্যালরিমিতির মূলনীতি: উষ্ণ বস্তু কতৃক বর্জিত তাপ = শীতল বস্তু কর্তৃক গৃহীত তাপ -এই নীতি প্রযোজ্য হওয়ার জন্য একটি শর্ত উল্লেখ করো।

উত্তর:- বস্তুসংস্থা এবং পারিপার্শ্বিকের মধ্যে তাপের আদান-প্রদান হবে না।

(৪) হিমমিশ্রের একটি ব্যবহার লেখো।

উত্তর:- মাছ , মাংস সংরক্ষণের জন্য হিমমিশ্র ব্যবহার করা হয়।

(৫) কখন তাপ দিলেও বস্তুর উষ্ণতা বাড়ে না?

উত্তর:- তাপ প্রয়োগের ফলে যদি পদার্থের অবস্থার পরিবর্তন ঘটে তাহলে বস্তুর উষ্ণতার কোনো পরিবর্তন ঘটে না।

(৬) তাপ প্রবাহের তিনটি পদ্ধতি কি কি?

উত্তর:- তাপ প্রবাহের তিনটি পদ্ধতি হল- পরিবহন, পরিচালন এবং বিকিরণ।

(৭) জলের বাষ্পীভবনের লীন তাপ কত?

উত্তর:- 537 ক্যালোরি / গ্রাম।

(৮) থার্মোফ্লাক্স কে আবিস্কার করেন?

উত্তর:- ইংরেজ বিজ্ঞানী জেমস ডিওয়ার।

নিচের প্রশ্নগুলির উত্তর দাও: (Heat Chapter Poribesh O Bigyan)

(১) তাপ সঞ্চালনের বিকিরণ পদ্ধতি বলতে কী বোঝায়?

উত্তর:- যে প্রক্রিয়ায় তাপ উষ্ণব বস্তু থেকে অপেক্ষাকৃত কম উষ্ণ পরিমণ্ডলে ছড়িয়ে পড়ে ও ছরিয় পড়ার জন্য কোন মাধ্যমের প্রয়োজন হয় না তাকে বিকিরণ বলে।

(২) মাটির কলসির জল ঠান্ডা থাকে কেন?

উত্তর:- মাটির কলশির জল ঠান্ডা থাকে। মাটির কলশির গায়ে অসংখ্য ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ছিদ্র থাকে। ওই ছিদ্রগুলো দিয়ে সামান্য পরিমাণ জল কলশির বাইরে বেরিয়ে আসে। তখন তার বাষ্পীভবন ঘটে। ফলে দরকার হয় লীন তাপের । ওই বেরিয়ে আসা জল তখন কলশি এবং কলশির ভেতরে থাকা জল থেকে প্রয়োজনীয় লীন তাপ সংগ্রহ করে। ফলে কলশি ও কলশির জল তাপ হারিয়ে ঠান্ডা হয়ে পড়ে।

(৩) কোন তরলের বাষ্পায়নের হার কোন্ কোন্ বিষয়ের উপর নির্ভর করে?

উত্তর:- তরলের বাষ্পায়নের হার যে যে বিষয়ের উপর নির্ভর করে তা নিচে দেওয়া হল।

(ক) যদি তরলের উপরিতলের ক্ষেত্রফল বেশি হয় তবে বাস পায়ন দ্রুত হয়।

(খ) তরলের উষ্ণতা বেশি হলে বাষ্পায়ন দ্রুত হয়।

(গ) তরলের ওপর বায়ু চলাচলের ব্যবস্থা থাকলে বাষ্পায়ন দ্রুত হয়।

(ঘ) তরলের প্রকৃতির ওপর বাষ্পায়নের হার নির্ভর করে। যেমন স্পিরিট খুব তাড়াতাড়ি বাষ্পীভূত হয়।

(৪) বিশুদ্ধ জল এবং লবণ মিশ্রিত জলের মধ্যে কোনটি স্ফুটনাঙ্ক বেশি হবে?

উত্তর:- লবণ মিশ্রিত জলের স্ফুটনাঙ্ক বেশি হবে।

(৫) তাপ সঞ্চালনের কোন পদ্ধতিতে পদার্থটির নিজের বা পদার্থ কোণার কোনো সরণ হয় না?

উত্তর:- পরিবহন পদ্ধতিতে।

(৬) স্টিমের লীনতাপ 537 ক্যালরি/গ্রাম বলতে কী বোঝায়?

উত্তর:- স্টিমের লীনতাপ 537 ক্যালরি/গ্রাম বলতে কী বোঝায় প্রমাণ বায়ুমণ্ডলীয় চাপে 100° C উষ্ণতায় এক গ্রাম জলকে একই উষ্ণতায় এক গ্রাম স্টিমে রূপান্তরিত করতে 537 ক্যালরি তাপ প্রয়োগ করতে হবে ‌।

(৭) শীতকালে গায়ে কম্বল চাপা দিয়ে ঘুমালে আরাম লাগে কেন?

উত্তর:- কম্বল হল তাপের কুপরিবাহী পদার্থ। শীতকালে গায়ে কম্বল চাপা দিলে বাইরের ঠান্ডা ভেতরে প্রবেশ করতে পারে না। তাছাড়াও কম্বল তাপের কুপরিবাহি পদার্থ হওয়ার জন্য শরীরের তাপও কম্বলের মধ্যে আটকে থাকে। তাই শীতকালে গায়ে কম্বল দিয়ে ঘুমালে আরাম লাগে।

(৮) থার্মোফ্লাক্সের দুই দেওয়ালের মধ্যবর্তী স্থান প্রায় বায়ু শূন্য থাকে কেন?

উত্তর:- থার্মোফ্লাক্সের দুই দেওয়ালের মাঝখান প্রায় বায়ুশূন্য থাকায় পরিবহন ও পরিচলন পদ্ধতিতে পাত্রটির বাইরের তাপ ভিতরে এবং ভেতরের তাপ বাইরে যেতে পারে না।

(৯) শীতকালে পাখিরা কখনো কখনো পালক ফুলিয়ে বসে থাকে কেন?

আরও দেখুন:  অষ্টম শ্রেণীর পরিবেশ বিজ্ঞান- জীবদেহের গঠন | Class 8 Poribesh o Bigyan Chapter 6

উত্তর:- শীতকালে পাখিরা পালক ফুলিয়ে বসে থাকে এবং রৌদ্রের তাপ শরীরের মধ্যে নেয়। পাখির পালক যেহেতু তাপের কুপরিবাহী সেহেতু ওই তাপ অনেকক্ষণ পর্যন্ত শরীরের মধ্যে আটকে থাকে। যার ফলে পাখিদের শীতকালে আরাম বোধ হয়। এই কারণে শীতকালে পাখিরা কখনো কখনো পালক ফুলিয়ে রৌদ্রে বসে থাকে।

(১০) বর্ষাকাল অপেক্ষা শীতকালে ভিজে জামা কাপড় তাড়াতাড়ি শুকোয় কেন?

উত্তর:- বর্ষাকালে বাতাসে যথেষ্ট পরিমাণে জলীয় বাষ্প থাকার কারণে বায়ু আর্দ্র হয়। ফলে জামা কাপড় তাড়াতাড়ি শুকোতে চায় না। কিন্তু শীতকালে বাতাসের জলীয় বাষ্প থাকে না অর্থাৎ শীতকালে বায়ু শুষ্ক হয়। ফলে বাষ্পীভবনের পরিমাণ বেশি হয় এবং জামাকাপড় তাড়াতাড়ি শুকিয়ে যায়।

(১১) রান্নার সময় পাত্রের মুখ ঢাকনা দিয়ে চেপে রাখলে রান্নার সময় খাদ্যবস্তু তাড়াতাড়ি সেদ্ধ হয় কেন?

উত্তর:- আমরা জানি চাপ বৃদ্ধি পেলে তরল পদার্থের স্ফুটনাঙ্ক বৃদ্ধি পায়। রান্নার সময় পাত্রের মুখ ঢাকনা দিয়ে চেপে রাখলে পাত্রের মধ্যে চাপ বৃদ্ধি পায়। ফলে পাত্রের তরলের স্ফুটনাঙ্ক বৃদ্ধি পায়। উচ্চ স্ফুটনাঙ্কে খাদ্যবস্তু তাড়াতাড়ি সেদ্ধ হয়। তাই রান্নার সময় পাত্রের মুখ ঢাকনা দিয়ে চেপে রাখলে খাদ্যবস্তু তাড়াতাড়ি সেদ্ধ হয়।

(১২) তরলের স্ফুটনাঙ্ক কোন কোন বিষয়ের উপর নির্ভর করে।

উত্তর:- তরলের স্ফুটনাঙ্ক যে যে বিষয়ের উপর নির্ভর করে তা হল-

(ক) তরলের প্রকৃতি।

(খ) তরলের দ্রবীভূত পদার্থের উপস্থিতি।

(গ) তরলের ওপরিস্থিত চাপ।

(১৩) এক ক্যালরি তাপ বলতে কী বোঝায়?

উত্তর:- এক গ্রাম বিশুদ্ধ জলের উষ্ণতা এক ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড বাড়াতে যে পরিমাণ তাপ লাগে তাকেই আমরা একক পরিমাণ তাপ বলি। এই একক পরিমাণ তাপকেই এক ক্যালরি বলে।

(১৪) গভীর রাতে শিশির পরে কেন?

উত্তর:- দিনের বেলায় সূর্যের তাপে পৃথিবী পৃষ্ঠের কাছাকাছি বস্তু গুলি উত্তপ্ত হয়। ফলে ওই বস্তুগুলির সংলগ্ন বায়ুস্তরও উত্তপ্ত হয়। দিনের বেলায়ও পৃথিবী তাপ ছাড়ে, কিন্তু সূর্যাস্তের পর সূর্য থেকে আর তাপ আসে না অথচ ভূপৃষ্ঠ তাপ বর্জন করতে থাকে। ফলে পৃথিবীর সেই অংশ এখন দিনের চেয়ে ঠান্ডা হতে শুরু করে। তখন ভূপৃষ্ঠ সংলগ্ন বায়োস্তর ধীরে ধীরে ঠান্ডা হতে থাকে । উষ্ণতা কমতে থাকলে একসময় ভূপৃষ্ঠ সংলগ্ন বায়ু জলীয় বাষ্প দিয়ে সম্পৃক্ত হয়ে পড়ে। উষ্ণতা আরো কমতে থাকলে বায়ু থেকে জলীয় বাষ্প জলকণা হিসেবে আলাদা হয়ে শিশির তৈরি করে। শিশির পড়ার জন্য এই উপযুক্ত অবস্থা তৈরি হতে বেশ কিছু সময় লাগে তাই সন্ধ্যেবেলায় শিশির পড়ে না অথচ গভীর রাতে শিশির পড়ে।

(১৫) গরম চা কাপ থেকে প্লেটের ঢাললে তাড়াতাড়ি ঠান্ডা হয় কেন?

উত্তর:- গরম চা কাপ থেকে প্লেটে ঢাললে তাড়াতাড়ি ঠান্ডা হয়। কারণ কাপের ওপরিতলের ক্ষেত্রফল এর চেয়ে প্লেটের ক্ষেত্রে ওপরিতলের ক্ষেত্রফল অনেক বেশি, যার ফলে বাষ্পীভবনের হার বেশি হয় এবং চা সহজে ঠান্ডা হয়।

(১৬) শীতকালে উলের পোশাক আরামদায়ক হয় কেন?

উত্তর:- উলের পোশাক তাপের কুপরিবাহী। তাই ঠান্ডার সময় বাইরে ঠান্ডা উলের পোশাক ভেদ করে ভেতরে প্রবেশ করতে পারে না। তাছাড়া উলের পোশাক যেহেতু তাপের কুপরিবাহী তাই শরীরের তাপও উলের পোশাকের মধ্যে আটকে থাকে বাইরে বেরিয়ে যেতে পারে না । তার জন্য শীতের সময় উলের পোশাক পড়া আরামদায়ক।

(১৭) পরিবহন ও পরিচলন পদ্ধতির মধ্যে দুটি পার্থক্য লেখ।

তাপের পরিবহণতাপের পরিচলন
এই পদ্ধতিতে তাপ সঞ্চালনের সময় পদার্থটির নিজের বা পদার্থ গঠনকারী কণার কোনো সরণ হয় না।এই পদ্ধতিতে তাপ সঞ্চালনের সময় পদার্থটির নিজের বা পদার্থ গঠনকারী কণার সরণ হয়।
শুধুমাত্র কঠিন পদার্থের ক্ষেত্রে এই পদ্ধতিতে তাপের সঞ্চালন হয়।তরল ও গ্যাসীয় উভয় পদার্থের ক্ষেত্রে এই পদ্ধতিতে তাপের সঞ্চালন হয়।
Heat Chapter Poribesh O Bigyan

(১৮) লীনতাপের সংজ্ঞা লেখ।

আরও দেখুন:  অষ্টম শ্রেণীর পরিবেশ বিজ্ঞান দ্বিতীয় অধ্যায়: পদার্থের প্রকৃতি | Class 8 Poribesh o Bigyan

উত্তর:- নির্দিষ্ট উষ্ণতায় একক ভরের কোন পদার্থের অবস্থার পরিবর্তন করতে যে পরিমাণ তাপ প্রয়োগ বা নিষ্কাশন করতে হয়, তাকে ঐ উষ্ণতায় ওই পদার্থের ওই অবস্থার পরিবর্তনের লীন তাপ বলে।

(১৯) থার্মোফ্লাক্স এর কার্যনীতি লেখো।

উত্তর:- থার্মোফ্লাক্স এর পাত্রের কাচ তাপের কুপরিবাহী। পাত্রটির খোলা মুখের ছিপিও তাপের কুপরিবাহী । পাত্রটির কাচ দিয়ে তৈরি অংশটির চারপাশ কুপরিবাহী পদার্থ দিয়ে ঘেরা। ফলে পরিবহনের সাহায্যে তাপ সঞ্চালন ব্যাহত হয়। আবার দুই দেয়ালের মাঝখান প্রায় বায়ুশূন্য থাকায় পরিবহন ও পরিচলন পদ্ধতিতে পাত্রটির বাইরের তাপ ভেতরে এবং ভেতরের তাপ বাইরে যেতে পারে না । বিকিরণ প্রক্রিয়ায় বাইরের থেকে তাপ ভেতরে প্রবেশ করার সময় প্রথম দেয়াল দ্বারা প্রতিফলিত হয়ে ফিরে যায়। ভেতর থেকে বাইরে যাওয়ার সময় দুই দেওয়ালের চকচকে পৃষ্ঠের জন্য পাত্রের ভেতর থেকে তা প্রতিফলিত হয়ে পাত্রের মধ্যেই ফিরে যায়। তাপের বিকিরণ অনেক কম হয়। এখানে তাপের এই আচরণ আলোর প্রতিফলন ধর্মের মত। এভাবে তাপ সঞ্চালনের সমস্ত প্রক্রিয়ায় ব্যাহত হয়। ফলে অনেকক্ষণ ধরে ফ্লাস্কে শীতল বস্তু শীতল ও উষ্ণ বস্তু উষ্ণ থাকে।

(২০) শীতকালে ভোরের দিকে কুয়াশা দেখা যায় কেন?

উত্তরঃ- শীতকালে রাতে বাতাস প্রায় স্থির থাকলে ভূপৃষ্ঠের কাছাকাছি অনেকখানি জায়গায় বায়ু ধীরে ধীরে শীতল হয়ে জলীয় বাষ্প দিয়ে সম্পৃক্ত হয়ে পড়ে। ওই জলীয় বাষ্প ঘনীভূত হয়ে বাতাসে ভাসমান ধূলিককাণার উপর জলকণা রূপে জমা হয়ে ভাসতে থাকে। এই কারণে শীতকালে ভোরের দিকে কুয়াশা দেখা যায়।

Heat Chapter Poribesh O Bigyan থেকে গাণিতিক প্রশ্ন উত্তর:

(১) তামার আপেক্ষিক তাপ 0.09 ক্যালরি /g⁰C। 70 গ্রাম ভরের তামার টুকরো উষ্ণতা 20 ডিগ্রি বৃদ্ধি করতে হলে কত পরিমাণ তাপ লাগবে তা নির্ণয় করো।

উত্তর:- তামার আপেক্ষিক তাপ (s) = 0.09 ক্যালরি /g⁰C

তামার ভর (m) =70 গ্রাম।

উষ্ণতা (t) = 20⁰C, ধরি, উষ্ণতা বৃদ্ধি করতে তাপ লাগবে = H

আমরা জানি, H = m s.t

H = (70 × 0.09 × 20) cal = 126 cal

(২) 100 cal তাপ যোগ করে 5g জলের উষ্ণতা কত ডিগ্রি সেলসিয়াস বাড়ানো যাবে?

উত্তর:- H = m.s.t

H= 100 cal, m = 5g, জলের s = 1

H=m.s.t\\t=\frac{H}{m.s}\\t=\frac{100}{5}\\t= 20^0C

(৩) একটি 50 গ্রাম ভরের পদার্থ খন্ডের উষ্ণতা 2⁰C বৃদ্ধি করতে 25 ক্যালোরি তাপের প্রয়োজন হয়। ওই পদার্থের আপেক্ষিক তাপ কত?

উত্তরঃ- পদার্থের আপেক্ষিক তাপ (s) = ?

পদার্থের ভর (m) =50 গ্রাম।

উষ্ণতা বৃদ্ধি (t) = 2⁰C, উষ্ণতা বৃদ্ধি করতে তাপ লাগবে = 25 ক্যালোরি

আমরা জানি, H = m s.t

H=m.s.t\\s=\frac{H}{m.t}\\s=\frac{25}{50\times2}\\s=0.25 \;cal/g/^oC

nath আমাদের পোষ্টের লেটেস্ট আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজ জয়েন করুন এবং টেলিগ্রাম চ্যানেল জয়েন করুন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top