Junior Bigyani Kanya Medha Britti

জুনিয়ার বিজ্ঞানী কন্যা মেধা বৃত্তি ২০২৪ | Junior Bigyani Kanya Medha Britti 2024

Senior Bigyani Kanya Medha Britti 2024

সিনিয়র বিজ্ঞানী কন্যা মেধা বৃত্তি ২০২৪ | Senior Bigyani Kanya Medha Britti 2024 Apply

hydrogen

Hydrogen | রসায়ন বিষয়ের হাইড্রোজেন অধ্যায়ের প্রশ্ম ও উত্তর

Last Updated on June 20, 2023 by Science Master

হাইড্রোজেন (Hydrogen)

1. হাইড্রোজেনের (Hydrogen) কোন আইসোটোপটি তেজস্ক্রিয় ?

উত্তরঃ- ট্রিটিয়াম।

2. সৌরশক্তির উৎস কী?

উত্তরঃ- নিউক্লিয় সংযোজন বিক্রিয়া। 4 1H12He4 + শক্তি

3. হাইড্রোলিথ কী ?

উত্তরঃ- ক্যালশিয়াম হাইড্রাইডকে () হাইড্রোলিথ বলে।

4. ওয়াটার গ্যাস বা সিনগ্যাস কী?

উত্তরঃ- CO এবং H2 গ্যাসের 1:1 অনুপাতের মিশ্রণকে ওয়াটার গ্যাস বলে।

5. পরীক্ষাগারে হাইড্রোজেন গ্যাস প্রস্তুতিতে অবিশুদ্ধ জিঙ্ক ব্যবহার করা হয় কেন?

উত্তরঃ- বিশুদ্ধ জিঙ্ক এর সঙ্গে গাড় H2SO4 এর বিক্রিয়া অত্যন্ত ধীর গতিতে ঘটে। আর Zn এর ওপর CuSO4 এর অধঃক্ষেপ পড়ে, ফলে H2 গ্যাস উৎপাদন বন্ধ হয়ে যায়। কিন্তু অবিশুদ্ধ Zn ব্যবহার করলে এই রকম কোনো অসুবিধারর সৃষ্টি হয় না। তাই অবিশুদ্ধ Zn ব্যবহার করা হয়।

6. একটি ধাতুর নাম লেখো যা NaOH এর সঙ্গে বিক্রিয়ায় H2 উৎপন্ন করে?

উত্তরঃ- অ্যালুমিমিয়াম।

7. H2 এর সঙ্গে বিক্রিয়ায় হ্যালোজেন গুলির সক্রিয়তার ক্রম লেখো।

উত্তরঃ- F > Cl > Br > I

8. অর্থো হাইড্রোজেন ও প্যারা হাইড্রোজেন কী?

উত্তরঃ- হাইড্রোজেন অণুর নিউক্লিয়াস দুটির ঘূর্ণন একমুখী হলে সেই হাইড্রোজেন অণুকে অর্থো হাড্রোজেন বলে।

হাইড্রোজেন অণুর নিউক্লিয়াস দুটির ঘূর্ণন বিপরীতমুখী হলে সেই হাইড্রোজেন অণুকে প্যারা হাড্রোজেন বলে।

9. জায়মান হাইড্রোজেন কাকে বলে?

উত্তরঃ- রাসায়নিক বিক্রিয়ায় সদ্য উৎপন্ন হাইড্রোজেন পারমাণবিক অবস্থায় থাকে। সদ্যজাত এই হাইড্রোজেনকে জায়মান হাইড্রোজেন বলে।

10. জায়মান হাইড্রোজেন সাধারণ হাইড্রোজেন অপেক্ষা অধিক সক্রিয় কেন?

উত্তরঃ- সাধারণ হাইড্রোজেনকে রাসায়নিক বিক্রিয়ায় অংশ গ্রহণ করতে হলে একে আণবিক অবস্থা থেকে পারমাণবিক অবস্থায় আসতে হয়। কিন্তু জায়মান হাইড্রোজেন পারমাণবিক অবস্থাতেই থাকে। ফলে সহজেই রাসায়নিক বিক্রিয়ায় অংশ গ্রহণ করতে পারে। তাই সাধারণ হাইড্রোজেন অপেক্ষা জায়মান হাইড্রোজেন বেশি সক্রিয়।

11. অন্তধৃতি কাকে বলে?

উত্তরঃ- ধাতু দ্বারা হাইড্রোজেন গ্যাসের শোষণকে অন্তধৃতি বলে। যেমন Pd, Pt প্রভৃতি ধাতু হাইড্রোজেন গ্যাস শোষণ করতে পারে।

12. জলের হিমাঙ্ক ও স্ফুটনাঙ্ক বেশি হয় কেন?

উত্তরঃ- অক্সিজেন পরমানুর তড়িৎ ঋণাত্মকতা বেশি হওয়ায় জলের অণুগুলি আন্তরানবিক হাইড্রোজেন- বন্ধন গঠনের মাধ্যমে পরস্পরের সঙ্গে সংযোজিত অবস্থায় থাকে। এই কারনে জলের হিমাঙ্ক ও স্ফুটনাঙ্ক বেশি হয়।

13. বরফ জলে ভাসে কেন?

উত্তরঃ- বরফের কেলাসের মধ্যে পাঁচটি জলের অণু আন্তরাণবিক হাইড্রোজেন-বন্ধনের সাহায্যে একটি চতুস্থলক গঠন করে। এই সুবিন্যাস্ত চতুস্তলক গুলির জন্য বরফ খোলা খাঁচার মতো গঠন লাভ করে। চতুস্তলক গুলির মধ্যে ফাঁকা জায়গা থাকায় বরফের ঘনত্ব জল অপেক্ষা কম হয় এবং তাই বরফ জলে ভাসে।

আরও দেখুন:  উচ্চমাধ্যমিক বাংলা সিলেবাস ২০২৪-২০২৫ | WBCHSE Bengali Syllabus 2024-2025 pdf Download

14. 4oC উষ্ণতায় জলের ঘনত্ব সবচেয়ে বেশি হয় কেন?

উত্তরঃ- 0oC থেকে উষ্ণতা বৃদ্ধি করলে বরফের গলন শুরু হয়। ফলে বরফের কেলাস গঠন ভাঙতে শুরু করে। তাই জলের অণুগুলি কাছাকাছি আসতে থাকে এবং আয়তন কমতে থাকায় ঘনত্ব বাড়তে থাকে। 4oC উষ্ণতায় জলের অণুগুলি সবচেয়ে ঘনসন্নিবিষ্ট থাকে, তাই এই উষ্ণতায় জলের ঘনত্ব সর্বাধিক হয়।

15. ওয়াটার গ্যাস কীভাবে উৎপন্ন হয়?

উত্তরঃ- লোহিত তপ্ত কোকের ওপর দিয়ে স্টিম চালনা করলে ওয়াটার গ্যাস উৎপন্ন হয়।

H_2O + C \xrightarrow[]{1000^o C} [CO + H_2]   (ওয়াটার- গ্যাস)

16. ভারী জল কী?

উত্তরঃ- ডয়টেরিয়াম অক্সাইডকে ভারী জল বলে।

17. স্থায়ী খরতা ও অস্থায়ী খরতা কাকে বলে?

উত্তরঃ- জলে Ca এবং Mg এর ক্লোরাইড ও সালফেট লবণ অর্থাৎ CaCl2 , CaSO4 , MgCl2, MgSO4 উপস্থিত থাকলে যে খরতার সৃষ্টি হয়, তাকে স্থায়ী খরতা বলে।

জলে Ca ও Mg বাইকার্বোনেট লবণ অর্থাৎ Ca(HCO3)2 এবং Mg(HCO3)2 উপস্থিত থাকলে যে খরতার সৃষ্টি হয়, তাকে অস্থায়ী খরতা বলে।

18. ক্যালগনের রাসায়নিক নাম ও সংকেত লেখো।

উত্তরঃ- ক্যালগনের রাসায়নিক নাম সোডিয়াম হেক্সামেটাফসফেট,

সংকেতঃ Na2[Na4(PO3)6]

19. জলের খরতার মাত্রা কোন এককের সাহায্যে প্রকাশ করা হয়?

উত্তরঃ- জলের খরতার মাত্রা ppm (parts per million) এককের সাহায্যে প্রকাশ করা হয়।

20. একটি নলকূপের জলের খরতা 100 ppm বলতে কী বোঝ?

উত্তরঃ- নলকূপের প্রতি 10 লক্ষ ভাগ ভরের জলে 100gm CaCO3 দ্রবীভূত আছে।

21. জলে K+ আয়ন থাকলে জল খর হয় না , কিন্তু Ca 2+ বা Mg2+ থাকলে জল খর হয় কেন?

উত্তরঃ- K+ আয়নের সঙ্গে সাধারণ সাবানের বিনিময় বিক্রিয়ার ফলে দ্রাব্য সাবান উৎপন্ন হয়, কিন্তু Ca 2+ বা Mg2+ আয়নের সঙ্গে বিনিময় বিক্রিয়ার ফলে অদ্রাব্য সাবান উৎপন্ন করে যা ফেনা উৎপন্ন করে না।

22. মার্কের পারহাইড্রল কী?

উত্তরঃ- H2O2 এর 30% জলীয় দ্রবণকে মার্কের পারহাইড্রল বলে।

23. H2O2 প্রস্তুতির সময় অনার্দ্র BaO2 এর পরিবর্তে সোদক BaO2 এর লেই ব্যবহার করা হয় কেন?

আরও দেখুন:  Class 11 Bengali Book pdf 2024 | একাদশ শ্রেণীর নতুন সিলেবাসের বাংলা বই ডাউনলোড

উত্তরঃ- অনার্দ্র BaO2 এর সঙ্গে অ্যাসিডের বিক্রিয়ায় উৎপন্ন তাপে H2O2 এর বিয়োজন ঘটে। এছাড়া অনার্দ্র BaO2 ব্যবহার করলে এর ওপর অদ্রাব্য BaSO4 এর আস্তরণ পড়ে, ফলে বিক্রিয়া বন্ধ হয়ে যায় । কিন্তু সোদক BaO2 ব্যবহার করলে তাপ উৎপন্ন হয় না এবং BaSO4 এর আস্তরণ পড়ে বিক্রিয়া বন্ধ হয়ে যায় না।

24. H2O2 প্রস্তুতির সময় BaO2 এর লেই এর মধ্যে লঘু H2SO4 না ঢেলে লঘু H2SO4 এর মধ্যে সময় BaO2 এর লেই ঢালা হয় কেন?

উত্তরঃ- BaO2 এর লেই এর মধ্যে লঘু H2SO4 ঢাললে বিক্রিয়ার প্রথম দিকে H2SO4 এর তুলনায় BaO2 এর পরিমান কম থাকায় মিশ্রণটি ক্ষারীয় হয়। ফলে H2O2 দ্রুত বিয়োজিত হয়। কিন্তু লঘু H2SO4 এর মধ্যে BaO2 ঢাললে মিশ্রণে বেশি থাকায় মিশ্রণটি আম্লিক হয় এবং H2O2 এর বিয়োজন হ্রাস পায়।

25. ভারী জলের ব্যবহার লেখো।

উত্তরঃ- (ক) পারমাণবিক চুল্লিতে দ্রুতগামী নিউট্রনের গতি মন্থর করতে মডারেটর হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

(খ) রাসায়নিক বিক্রিয়ার ক্রিয়াকৌশল নির্ণয় করতে ব্যবহার হয়।

(গ) NMR স্পেকট্রোস্কপির সাহায্যে জৈব যৌগের গঠনআকৃতি নির্ণয়ের কাজে ব্যবহার করা হয়।

26. মার্শাল অ্যাসিড কী? এটি কীভাবে তৈরী করবে?

উত্তরঃ- প্ল্যাটিনাম তড়িদ্বার ব্যবহার করে 50% H2SO4 অ্যাসিডের শীতল (-20oC) জলীয় দ্রবণের তড়িদ বিশ্লেষণ ঘটিয়ে H2O2 এর শিল্প উৎপাদন করা হয়। ক্যাথোডে হাইড্রোজেন ও অ্যানোডে পারক্সিডাই সালফিউরিক অ্যাসিড (H2S2O8) উৎপন্ন হয়। অ্যানোডে উৎপন্ন এই অ্যাসিডকেই মার্শাল অ্যাসিড বলে।

27. H2O2 প্রস্তুতিতে BaO2 এর পরিবর্তে MnO2 ব্যবহার করা যায় না কেন?

উত্তরঃ- BaO2 এর গঠনে পারক্সি বন্ধন (-O-O-) থাকলেও MnO2 এর গঠনে কোনো পারক্সি বন্ধন নেই।

28. পুরানো তৈলচিত্রের নিজের রং ফিরিয়ে আনার জন্য H2O2 ব্যবহার করা হয় কেন?

উত্তরঃ- পুরানো তৈলচিত্রে ” লেড হোয়াইট ” নামে যে সাদা রং ব্যবহৃত হয় তা ক্ষারীয় লেড অ্যাসিটেট, লেড কার্বনেট, লেড সালফেট প্রভৃতির সংমিশ্রণে তৈরী । তোইলচিত্র দীর্ঘদিন বায়ুতে উন্মুক্ত থাকলে লেড হোয়াইটে উপস্থিত যৌগ গুলি বায়ুতে উপস্থিত H2S এর সঙ্গে বিক্রিয়া করে কালো রঙের অদ্রাব্য লেড সালফাইডে পরিণত হয়, ফলে তৈলচিত্র কালো হয়ে যায়। লঘু H2O2 দ্রবন দিয়ে তোইলচিত্রকে ধুয়ে ফেললে লেড সাআলফাইড ( PbS ) জারিত হয়ে সাদা লেড সালফেটে পরিণত হয় এবং এর উজ্জ্বলতা পুনরায় ফিরে পাই।

আরও দেখুন:  WB HS Semester System Syllabus 2024-25 | উচ্চমাধ্যমিক সেমিস্টার সিস্টেম সিলেবাস pdf

29. 30% H2O2 দ্রবন বলতে কী বোঝ?

উত্তরঃ- 30% H2O2 দ্রবন বলতে বোঝায় 100ml ঐ দ্রবনে 30g H2O2 দ্রবীভূত আছে।

30. অ্যাসিডযুক্ত KMnO4 দ্রবণে H2O2 যোগ করা হলে কী ঘটবে?

উত্তরঃ- লালচে বেগুনি বর্ণের অম্লায়িত KMnO4 দ্রবণকে H2O2 বর্ণহীন ম্যাঙ্গানাস সালফেটে বিজারিত করে।

2KMnO4 + 5H2O2 + 3H2SO4 = 2MnSO4 + K2SO4 + 8H2O +5O2

31. অম্লযুক্ত K2Cr2O7 দ্রবণে H2O2 যোগ করলে কী ঘটবে?

উত্তরঃ- কমলা বর্ণের অম্লায়িত K2Cr2O7 দ্রবণকে H2O2 সবুজ বর্ণের ক্রোমিয়াম লবণে বিজারিত করে।

K2Cr2O7 + 4H2SO4 + 3H2O2 = K2SO4 + Cr2(SO4)3 + 7H2O + 3O2

32. জিওলাইট কী?

উত্তরঃ- জিওলাইট হল- সোডিয়াম অ্যালুমিনিয়াম সিলিকেট। এর রাসায়নিক সংকেত [Na2Al2Si2O8, xH2O]

33. নলকূপের জল কিছুক্ষণ রেখে দিলে ঘোলাটে বাদামী বর্ণের হয় কেন?

উত্তরঃ- নলকূপের জলে অনেক সময় ফেরাস বাইকার্বনেট [Fe(HCO3)2] লবণ দ্রবীভূত থাকে। এই যৌগটি বায়ুর অক্সিজেনের সংস্পর্শে জারিত হয়ে বাদামি বর্ণের ফেরিক হাইড্রক্সাইডে পরিণত হয়। এই Fe(OH)3 কলয়েডীয় কণার আকারে জলে ভাসমান থাকে বলে জল ঘলাটে বাদামি বর্ন ধারণ করে।

34. হাইড্রোজেন পারক্সাইডকে কিভাবে শনাক্ত করবে? বিক্রিয়াসহ লেখো। [XI-2023]

উত্তরঃ- অ্যাসিডযুক্ত টাইটেনিয়াম সালফেট দ্রবণে H2O2 যোগ করলে পারটাইটানিক অ্যাসিড (H2TiO4) উৎপন্ন হয় এবং দ্রবণের বর্ণ হলুদ বা কমলা হলুদ হয়।

Ti(SO)4 + H2O2 + 2H2O ⟶ H2TiO4 + 2H2SO4

35. ” 10 vol H2O2” দ্রবণ বলতে কী বোঝো?

উত্তরঃ- ” 10 vol H2O2 ” বলতে বোঝায় যে দ্রবণটির 1 মিলিলিটার থেকে STP তে 10 মিলিলিটার O2 পাওয়া যাবে।

আরও দেখুনঃ একাদশ শ্রেণীর রসায়ন বিষয়ের ” পর্যায় সারণী ” অধ্যায়ের প্রশ্ম ও উত্তর।

আরও দেখুনঃ একাদশ শ্রেণীর রসায়ন বিষয়ের ” পদার্থের গ্যাসীয় ও তরল অবস্থা ” অধ্যায়ের প্রশ্ম ও উত্তর।

আরও দেখুনঃ একাদশ শ্রেণীর রসায়ন বিষয়ের ” পরমাণুর গঠন ” অধ্যায়ের প্রশ্ম ও উত্তর।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top