Alcohols, Phenols and EthersAlcohols, Phenols and Ethers

Last Updated on March 12, 2023 by Science Master

Alcohols, Phenols and Ethers

অ্যালকোহল, ফেনল এবং ইথার (Alcohols, Phenols and Ethers) অধ্যায়ের MCQ প্রশ্ম-উত্তরঃ

1.অ্যালকোহলের নিরুদনের সঠিক ক্রম-

(a) 1o >2o>3o

(b) 3o>2o>1o

(c) 2o>1o>3o

(d) 1o>3o>2o

উঃ- 3o>2o>1o

2. নীচের কোন বিকারক দ্বারা মিথানল ও ইথানলের মধ্যে পার্থক্য করা যায়-

(a) NH3

(b) Br2/H2O

(c) I2/NaOH

(d) FeCl3

উঃ- I2/NaOH

3. প্রশম ফেরিক ক্লোরাইড যোগ করলে নীচের কোন যৌগটি বেগুনী বর্ণ দেয়-

(a) C2H5OH

(b) CH3COCH3

(c) CH3OCH3

(d) C6H5OH

উঃ- C6H5OH

4. ফেনলের সাথে PCl5 এর বিক্রিয়ায় মূল বিক্রিয়াজাত পদার্থটি হল-

(a) ট্রাইফিনাইল ফসফেট

(b) ক্লোরোবেঞ্জিন

(c) প্যারা-ক্লোরোফেনল

(d) মেটা-ক্লোরোফেনল

উঃ- ক্লোরোবেঞ্জিন।

5. (a) (b) (c) (d)

6. (a) (b) (c) (d)

7.(a) (b) (c) (d)

8. (a) (b) (c) (d)

9.(a) (b) (c) (d)

10.(a) (b) (c) (d)

1. ইথানলে গাঢ় H2SO4 এবং NaI যোগ করে উত্তপ্ত করলে ইথাইল অয়োডাইড উৎপন্ন হবে কিনা যুক্তিসহ লেখো।

উঃ- I একটি ভালো লিউক্লিওফাইল হয়া সত্বেও এর দ্বারা শক্তিশালী ক্ষারক তথা নিকৃষ্ট লিভিং গ্রুপ OH- এর প্রতিস্থাপন হয় না। গাঢ় H2SO4 এর উপস্থিতিতে ইথানলের -OH গ্রুপটি –+OH2 গ্রুপে পরিণত হয়। H2O একটি দূর্বল ক্ষারক কিন্তু উৎকৃষ্ট লিভিং গ্রুপ হওয়ায় I দ্বারা সহজেই প্রতিস্থাপিত হয়। এই কারনে শুধুমাত্র ইথানলের সঙ্গে NaI যোগ করে উত্তপ্ত করলে ইথাইল আয়োডাইড উৎপন্ন হয় না। কিন্তু গাঢ় H2SO4 এর উপস্থিতিতে সহজেই ইথাইল আয়োডাইড উৎপন্ন হয়।

CH_3CH_2OH\xrightarrow[\Delta]{গাঢ়\; H_2SO_4}CH_3CH_2- ^+OH_2\\CH_3CH_2- ^+OH_2+ I^-\rightarrow CH_3CH_2I+H_2O

2. অ্যালকোহলের সঙ্গে ডায়াজোমিথেনের বিক্রিয়ায় লুইস অ্যাসিড যোগ করা হয় কেন?

উঃ- অ্যালকোহলের সঙ্গে ডায়াজোমিথেনের মিথিলেশন বিক্রিয়ার সময় সাবস্ট্রেটে অবশ্যই আম্লিক হাইড্রোজেন উপস্থিতি থাকা প্রয়োজন। লুইস অ্যাসিডের উপস্থিতিতে অ্যালকোহলের আম্লিকতা যথেষ্ট পরিমানে বৃদ্ধি পায়। তাই অ্যালকোহলের সঙ্গে ডায়াজোমিথেনের বিক্রিয়ায় লুইস অ্যাসিড যোগ করা হয়।

3. ডাই ইথাইল ইথার ক্ষারে অদ্রাব্য কিন্তু ঘন HCl এ দ্রাব্য- ব্যাখ্যা করো।

উঃ- ইথারগুলি লুইস ক্ষারক হিসেবে ক্রিয়া করে বলে ক্ষারের সঙ্গে বিক্রিয়া করে না, ফলে এরা ক্ষারে দ্রবীভূত হয় না। অন্যদিকে, ইথারগুলি ঘন অজৈব অ্যাসিড, যেমন, HCl, H2SO4 এর সঙ্গে বিক্রিয়ায় অক্সোনিয়াম লবণ গঠন করে অ্যাসিডে দ্রবীভূত হয়। এই কারনে ডাই ইথাইল ইথার ক্ষারে অদ্রাব্য কিন্তু ঘন HCl এ দ্রাব্য হয়।

4. ইথারে পারক্সাইডের উপস্থিতি কিভাবে প্রমাণ করবে?

উঃ- (1) ইথারের কোনো নমুনায় স্টার্চ মিশ্রিত KI এর জলীয় দ্রবণ যোগ করে ঝাঁকালে যদি দ্রবণটি নীল বর্ণ ধারন করে, তবে বুঝতে হবে ইথারে পারক্সাইড উপস্থিত। (2) ইথারের কোনো নমুনায় সামান্য ফেরাস অ্যামোনিয়াম সালফেট (মোর লবণ) এবং অ্যামোনিয়াম থায়োসায়ানেটের জলীয় দ্রবন মিশিয়ে ভালোভাবে ঝাঁকালে যদি লাল রং উৎপন্ন হয়, তবে বুঝতে হবে ইথারে পারক্সাইড উপস্থিত।

5. ফেনল ও বেঞ্জাইল অ্যালকোহলের মধ্যে পার্থক্য লেখো।

উঃ-

ফেনলবেঞ্জাইল অ্যালকোহল
ফেনলের নমুনায় কয়েক ফোঁটা প্রশম
ফেরিক ক্লোরাইড দ্রবন যোগ করলে বেগুনি বর্ণের জটিল যৌগ উৎপন্ন করে।
6C6H5-OH + FeCl3 → [Fe(-O-C6H5)6]3- (বেগুনি)
দ্রবনের বর্ণের কোনো পরিবর্তন হয় না।
ফেনল ব্রোমিন জলের সঙ্গে বিক্রিয়ায় সাদা অধঃক্ষেপ উৎপন্ন করে।
C6H5-OH + 3Br2 + H2O → 2,4,6-ট্রাইব্রোমোফেনল (সাদা)
বেঞ্জাইল অ্যালকোহল ব্রোমিন জলের
সঙ্গে বিক্রিয়ায় সাদা অধঃক্ষেপ উৎপন্ন করে না।

6. লুকাস বিকারক কি? এর সাহায্যে কিভাবে 1o, 2o এবং 3o অ্যালকোহল শনাক্ত করবে?

উঃ- লুকাস বিকারক হল গাঢ় HCl ও অনার্দ্র ZnCl2 এর মিশ্রণ।

1o অ্যালকোহলঃ 1o অ্যালকোহলে লুকাস বিকারক যোগ করলে সাধারন উষ্ণতায় কোনো বিক্রিয়া ঘটে না বলে দ্রবনের ঘোলাটে ভাব আসে না।

CH_3CH_2OH(1^o)\xrightarrow[সাধারন\; উষ্ণতা]{অনার্দ্র\;ZnCl_2/HCl} অ্যা লকিল \;ক্লোরাইড \;উৎপন্ন\;হয়\;না

2o অ্যালকোহলঃ 2o অ্যালকোহলে লুকাস বিকারক যোগ করলে বিক্রিয়াটি ধীরগতিতে ঘটে এবং ঘোলাটে ভাব আসতে পাঁচ মিনিট সময় লাগে।

(CH_3)_2CHOH(2^o)\xrightarrow[]{অনার্দ্র\;ZnCl_2/HCl} (CH_3)_2CHCl\;(অ্যা লকিল \;ক্লোরাইড)

3o অ্যালকোহলঃ 3o অ্যালকোহলে লুকাস বিকারক যোগ করলে বিক্রিয়াটি দ্রুতগতিতে ঘটে বলে দ্রবন তৎক্ষণাৎ ঘোলাটে হয়ে যায়।

(CH_3)_3COH(3^o)\xrightarrow[]{অনার্দ্র\;ZnCl_2/HCl} (CH_3)_3CCl\;(অ্যা লকিল \;ক্লোরাইড)

সুতরাং, কোনো অ্যালকোহলের নমুনায় লুকাস বিকারক যোগ করে ঝাঁকালে যদি দ্রবণটি সঙ্গে সঙ্গে ঘোলাটে হয়ে যায় তাহলে নমুনাটি 3o অ্যালকোহল, যদি দ্রবণটি 5 মিনিটের মধ্যে ঘোলাটে হয়ে যায়, তাহলে নমুনাটি 2o অ্যালকোহল এবং যদি দ্রবণটি স্বচ্ছ থাকে তাহলে নমুনাটি 1o অ্যালকোহল।

7. p- নাইট্রোফেনল, o- নাইট্রোফেনল এবং m- নাইট্রোফেনলের অম্লধর্মিতার ক্রম উল্লেখ করো।

উঃ- p- নাইট্রোফেনল > o- নাইট্রোফেনল > m- নাইট্রোফেনল > ফেনল

-NO2 গ্রুপের শক্তিশালী ইলেকট্রন আকর্ষী প্রকৃতির জন্য সকল নাইট্রোফেনল গুলি ফেনলের থেকে বেশি আম্লিক। একটি -NO2 গ্রুপ -I এবং -R এফেক্টের সাহায্যে ইলেকট্রন আকর্ষন করতে পারে। গ্রুপটি যে কোনো অবস্থানে থেকেই -I এফেক্টের সাহায্যে -OH গ্রুপের অক্সিজেন পরমানুর ইলেকট্রন ঘনত্ব হ্রাস করে। গ্রুপটি কেবলমাত্র অর্থো বা প্যারা অবস্থানে থাকলে -OH গ্রুপের অক্সিজেনের নিঃসঙ্গ ইলেকট্রন জোড়ের সঙ্গে কনজুগেশন ঘটে বলে -R এফেক্টের সাহায্যে এটি -OH গ্রুপের অক্সিজেনের নিঃসঙ্গ ইলেকট্রন জোড়কে নিজের দিকে টেনে নেয়। -NO2 গ্রুপটি মেটা অবস্থানে থাকলে -OH গ্রুপের অক্সিজেনের নিঃসঙ্গ ইলেকট্রন জোড়ের সঙ্গে এর কনজুগেশন ঘটে না বলে নিঃসঙ্গ ইলেকট্রন জোড়কে নিজের দিকে টেনে নিতে পারে না। সুতরাং অর্থো বা প্যারা নাইট্রোফেনলের -OH গ্রুপের অক্সিজেন পরমানুটি মাটা নাইট্রোফেনলের -OH গ্রুপের অক্সিজেন পরমানু অপেক্ষা অধিক ধনাত্মক চার্জযুক্ত হয়ে পড়ে এবং সহজে O-H বন্ধন বিভাজনের মাধ্যমে অধিক অম্লধর্মিতা প্রদর্শন করে।

Alcohols, Phenols and Ethers

8. পাওয়ার অ্যালকোহল কী?

উঃ- অনেক সময় পেট্রোলের পরিবর্তে মোটর গাড়িতে পেট্রোল, ইথানল এবং বেঞ্জিনের মিশ্রণ জ্বালানি রূপে ব্যবহৃত হয়। এই মিশ্রণকে পাওয়ার অ্যালকোহল বলে।

9. নিন্মলিখিত যৌগগুলিকে অম্লত্বের অধঃক্রমে সাজাও-

উঃ- iii > i > ii > iv

10. অ্যালকোহলের গঠনে উপস্থিত -OH গ্রুপের সংখ্যা নির্ণয়ের একটি পদ্ধতি উল্লেখ করো।

উঃ- অ্যাসিটাইলেশন পদ্ধতির সাহায্যে কোনো জৈবযৌগে -OH গ্রুপের উপস্থিতির প্রমাণ করা যায় এবং ওই যৌগে -OH গ্রুপের সংখ্যা নির্ধারন করা যায়। পিরিডিন ক্ষারকের উপস্থিতিতে অ্যালকোহলের সঙ্গে অ্যাসিটাইল ক্লোরাইড বা অ্যাসিটিক অ্যানহাইড্রাইডের বিক্রিয়া ঘটালে অ্যালকোহলের -OH গ্রুপের H পরমানু অ্যাসিটাইল (CH3CO-) গ্রুপ দ্বারা প্রতিস্থাপিত হয়। কোনো যৌগে যত সংখ্যাক -OH গ্রুপ থাকে উৎপন্ন অ্যাসিটাইল যৌগে তত সংখ্যাক CH3CO- গ্রুপ প্রতিস্থাপিত হয়।

অ্যালকোহল, ফেনল ও ইথারসমূহ অধ্যায়ের কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ নাম বিক্রিয়া (Name Reaction):

রাইমার-টিম্যান বিক্রিয়া (Reimer-Tiemann Reaction):

ফেনলকে অ্যালকোহলীয় NaOH বা KOH এর উপস্থিতিতে ক্লোরোফর্মের সঙ্গে রিফ্লাক্স করিয়ে আদ্রবিশ্লেষণ করলে 2-হাইড্রক্সিবেঞ্জ্যাল্ডিহাইড তথা স্যালিস্যালডিহাইড উৎপন্ন হয়। এই বিক্রিয়াটিকে রাইমার-টিম্যান বিক্রিয়া বলে।

বিক্রিয়াটিতে যদি ক্লোরোফর্মের পরিবর্তে কার্বনটেট্রাক্লোরাইড ব্যবহার করা হয়, তাহলে স্যালিসাইলিক অ্যাসিড পাওয়া যায়।

উইলিয়ামসন সংশ্লেষণ (Williamson Synthesis):

অ্যালকিল হ্যালাইডকে সোডিয়াম অ্যালকক্সাইড বা সোডিয়াম ফেনক্সাইডের সঙ্গে বিক্রিয়া করালে ইথার পাওয়া যায়। বিক্রিয়াটিকে উইলিয়ামসন সংশ্লেষণ বলে।

CH3-I + CH3-CH2-ONa ➝ CH3-O-CH2-CH3 +NaI

কোলবে-স্মিট বিক্রিয়া (Kolbe-Schmitt Reaction)

শুস্ক সোডিয়াম ফেনেট বা ফেনক্সাইডকে কার্বন ডাই অক্সাইডের সঙ্গে উচ্চ চাপে (4-7 atm) 120-140oC তাপমাত্রায় উত্তপ্ত করলে প্রায় সম্পূর্ণরূপে সোডিয়াম স্যালিসাইলেট উৎপন্ন হয়। এর জলীয় দ্রবণকে শীতল লঘু HCl দ্বারা আম্লিক করলে স্যালিসাইলিক অ্যাসিড পাওয়া যায়। এই বিক্রিয়াকে কোলবে-স্মিট বিক্রিয়া বলে।

গ্যাটারম্যান বিক্রিয়া (Gattermann Reaction):

অনার্দ্র AlCl3 অনুঘটকের উপস্থিতিতে ফেনলের সঙ্গে HCN এবং HCl এর বিক্রিয়ায় উৎপন্ন ইমিন যৌগকে আর্দ্রবিশ্লেষণ করলে প্রধান বিক্রিয়াজাত পদার্থ হিসেবে প্যারা-হাইড্রক্সিবেঞ্জ্যালডিহাইড উৎপন্ন হয়। একে গ্যাটারম্যান বিক্রিয়া বলে।

ব্যুভোঁ-ব্লাঙ্ক বিজারণ (Bouveault-Blanc Reduction):

এই বিক্রিয়ার সাহায্যে এস্টারকে Na/C2H2OH বা LiAlH4 বা উচ্চচাপে কপার ক্রোমাইট অনুঘটকের উপস্থিতিতে H2 দ্বারা বিজারিত করে দুই অণু অ্যালকোহল উৎপন্ন করা হয়। এস্টারের অ্যাসাইল (RCO-) অংশ থেকে প্রাইমারি অ্যালকোহল এবং অ্যালকক্সি (-OR’) অংশ থেকে প্রাইমারি, সেকেণ্ডারি বা টারসিয়ারি অ্যালকোহল উৎপন্ন হয়।

R-COOR' \xrightarrow[বা\;কপার\; ক্রোমাইট,H_2 175^oC, 340atm]{Na/C_2H_5OH \;বা\;LiAlH_4}R-CH_2OH+R'-OH

আরও দেখুনঃ-

আমাদের পোস্টের গুরুত্বপূর্ণ আপডেট পেতে আমাদের Facebook Page ফলো করুন এবং Telegram চ্যানেল জয়েন করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: